তাজা বার্তা | logo

২০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৪ঠা আগস্ট, ২০২০ ইং

আর্থিক সংকটে ইউরোপের ক্লাবগুলো

প্রকাশিতঃ মে ০৭, ২০২০, ১১:৪৭

আর্থিক সংকটে ইউরোপের ক্লাবগুলো

ইংল্যান্ডের পেশাদার ফুটবল ক্লাবগুলো পড়েছে মহাসংকটে। একদিকে মাঠে নামলে স্বাস্থ্য-ঝুঁকি, অন্যদিকে খেলা না হলে বড় অঙ্কের অর্থনৈতিক লোকসান। গবেষণা বলছে, ফুটবলারদের বেতন-ভাতা সহ যাবতীয় খরচ বহন করতে গিয়ে দেউলিয়া হতে পারে অনেক ক্লাব। তাই যেকোনো উপায়ে খেলা মাঠে ফেরাতে মরিয়া কর্তৃপক্ষ। কিন্তু, এর ঘোর বিরোধী ক্লাবের চিকিৎসকরা। এই জটিলতার মাঝে আনুষ্ঠানিক অনুশীলন পেছাচ্ছে অনেক বড় ক্লাবই।

খেলা বন্ধ থাকায় আর্থিক সংকটে ইউরোপের ছোট-বড় অধিকাংশ ক্লাব। ১৪৪ মিলিয়ন পাউন্ড ক্ষতির আশঙ্কায় আর্সেনাল। লোকসান পুষিয়ে নিতে হিমশিম খাওয়ায় মালিকানা বদলাতে তোড়জোড় শুরু করেছেন নিউক্যাসল ইউনাইটেডের বর্তমান মালিক। ফুটবল, ক্রিকেট ও রাগবি মিলিয়ে ব্রিটিশদের ক্রীড়াঙ্গণে ৭০০ মিলিয়ন পাউন্ড ক্ষতির আশঙ্কা করছেন সংসদ সদস্যরা।
অনেক ফুটবলারের দ্বিমতের মুখে বেতন-ভাতা কাটার পরিকল্পনা সেভাবে বাস্তবায়ন করতে পারেনি ক্লাবগুলো। রাজস্ব আয় নেই। অনেক পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। খেলোয়াড়, স্টাফদের পারিশ্রমিকের উৎস কি হবে, তা ভেবে চুল ছেঁড়ার উপক্রম। জুনের শেষে প্রায় দেড় হাজার পেশাদার ফুটবলারের চুক্তি শেষ হলে তারাও পড়বে বিপাকে। এ সংকট থেকে উত্তরণে ইংলিশ ফুটবল লিগ ও ফুটবলার্স অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ চেষ্টার বিকল্প নেই।

আর্থিক বিপর্যয়ের আশঙ্কায়, করোনার আতঙ্কও কখনো কখনো তুচ্ছ মনে হয়। পেশাদার ক্লাবগুলো তাই বেপরোয়া। যেকোনো উপায়ে চালু করতে হবে খেলা। কিন্তু, মহামারির বর্তমান পরিস্থিতি যে এখনো খেলা শুরুর জন্য আদর্শ নয়। সোমবারের সভা শেষে আবারো মনে করিয়ে দিয়েছেন চিকিৎসকরা।
এসবের মাঝে দোলাচলে কোচ ও ফুটবলাররা। ব্রিটেনে লকডাউন শিথিল করায় আগামী সপ্তাহে অনুশীলনে নামার কথা ছিলো দলগুলোর। কিন্তু, পিছিয়ে যাচ্ছে আনুষ্ঠানিক ট্রেনিং সেশন। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৮ মে’র আগে আর মাঠে নামছে না অধিকাংশ ক্লাবই।


© তাজা বার্তা ২০২০

Developed by XOFT IT