তাজা বার্তা | logo

১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনার মধ্যেই অস্ট্রেলিয়ায় চলছে অনলাইন জুয়া

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ১৩, ২০২০, ১৪:৪৯

করোনার মধ্যেই অস্ট্রেলিয়ায় চলছে অনলাইন জুয়া

বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস মহামারীতে রুপ নিয়েছে। এটির প্রতিরোধ ব্যবস্থা খুঁজতে বিশ্বব্যাপী বিজ্ঞানী ও গবেষকরা খাচ্ছেন হিমশিম। আর এরমধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় চলছে রমরমা অনলাইন জুয়ার আসর।

ক্লাব ও ক্যাসিনো বন্ধ করে দেয়ায় জমে উঠেছে অনলাইন জুয়ার আসর। জুয়াড়িদের অনলাইনে আকর্ষণ করতে নতুন নতুন ফন্দি কাজে লাগাচ্ছে বেটিং সাইটগুলো।

যেমন- আগামীকালের সংবাদ সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী কোন রংয়ের টাই পরবেন এ নিয়েও এখন বাজি হচ্ছে। জুয়ার এমন বিস্তৃতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করছেন বিশেষজ্ঞরা।

অস্ট্রেলিয়ার মোনাস ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক চার্লস লিভিংস্টোন এসবিএস নিউজকে বলেন, ক্লাব বা ক্যাসিনো বন্ধ করে দেয়ায় সেগুলো এখন অনলাইনে শিফট হয়েছে। এটা আরো বিপজ্জনক। কারণ এ খেলার কোনো সীমারেখা নেই। ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেও এখানে খেলা যায়, এতে বিপুল অংকের বাজি থাকায় অনেক বেশি মানুষ ভয়াবহ পরিণতি ভোগ করতে হবে।

পরামর্শক প্রতিষ্ঠান আলফাবেটা ও ক্রেডিট ফার্ম ইলিয়নের তথ্য অনুযায়ী, করোনা মহামারি ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে অস্ট্রেলিয়ায় অনলাইন জুয়া ব্যাপকভাবে বেড়েছে। লকডাউনে ক্লাব ও ক্যাসিনো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় প্রথম সপ্তাহেই অনলাইন জুয়া বেড়েছে ৬৭ শতাংশ।

অধ্যাপক চার্লস লিভিংস্টোন বলেন, অনলাইন জুয়া নিয়ন্ত্রণে সরকারের নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা উচিত। এ ক্ষেত্রে যে সব ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা হয় সেগুলো বাতিল করা উচিত, সরকারের মনিটরিং জোরদার করতে হবে। কারণ অনলাইনে বাজির কোনো সীমা না থাকায় বিপুল সংখ্যক মানুষ সব খুইয়ে নিঃস্ব হয়ে যায়।

জুয়াবিষয়ক বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক সামান্থা থমাস বলেন, বিশ্বে ঘোড়দৌড়সহ অভিজাতদের যে সব জুয়া হয় সে সব আসর যেমন- এএফএল এবং এনআরএল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে কভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়ার কারণে। তাতে অনলাইন বুকাররা আরো বড় বাজির হাতছানি দিচ্ছে এবং মানুষ সেদিকে সাড়াও দিচ্ছে। এগুলোও মারাত্বক ঝুঁকিপূর্ণ। এর চেয়ে মানুষকে রাশিয়ান টেবিল টেনিস ও নিকারাগুয়ার ফুটবলের মতো বাজিতে আগ্রহী করা যেতে পারে। এগুলো কম ঝুঁকিপূর্ণ।

অস্ট্রেলিয়ার একটি অনলাইন জুয়ার কম্পানি তার জুয়াড়িদের বাজি ধরাচ্ছে পরের দিনের সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন কোন রংয়ের টাই পরবেন। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের একটি বেটিং সাইট বাজি খেলছে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পরের সংবাদ সম্মেলনে কতবার তার প্রিয় শব্দ বা বাক্য ব্যবহার করবেন।

সামান্থা থমাস বলেন, জুয়া বিষয়ক গবেষণায় দেখা যায়, মানুষ খুব আবেগ ও অর্থনৈতিক চাপের সময়ে বেশি অর্থ হারায়। অনেক মানুষই এখন এমন পরিস্থিতিতে আছে। করোনা মহামারিতে অস্ট্রেলিয়ায় আমরা এখন অনেক সমস্যায় আছি। আমরা ঘরে আবদ্ধ, এতে অনেকেই বিরক্ত, মানুষিক টেনশন তো আছেই। এতে সাময়িক স্বস্তি বা আর্থিক লোভে অনেকেই জুয়ায় আকৃষ্ট হবে। তাই এ ব্যাপারে পুরোপুরি ছেড়ে না দিয়ে সরকারকে নিয়ন্ত্রণ আরোপ করতে হবে।

সূত্র: এসবিএস নিউজ


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT