তাজা বার্তা | logo

৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনাভাইরাসের উৎস নিয়ে গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশে চীন সরকারের বিধিনিষেধ

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ১৩, ২০২০, ১৪:০৫

করোনাভাইরাসের উৎস নিয়ে গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশে চীন সরকারের বিধিনিষেধ

করোনাভাইরাসের উৎস নিয়ে চীন-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বাদানুবাদের মাঝেই এবার ভাইরাসের উৎস নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে গবেষণা প্রকাশে বিধিনিষেধ আরোপ করল চীন।

চীনের কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশনার কারণে দেশটির দুটি বিশ্ববিদ্যালয় তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত নোটিশটি মুছে ফেলেছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের খবরে বলা হয়, ভাইরাসটির উৎস চীনে নয় এমন দাবি প্রতিষ্ঠা করার জন্য চীন সরকার এমনটি করেছে।

চীনের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের কথা হচ্ছে, করোনাভাইরাসের উৎস নিয়ে সব গবেষণা একটি বিশেষ পর্যবেক্ষণের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। এ সংক্রান্ত গবেষণা প্রকাশের আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কমিটি মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগে পাঠাবে। সেখান থেকে কোভিড-১৯ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ টাস্ক ফোর্স তা দেখে দেবে। তারপরই কেবল গবেষণা প্রবন্ধটি জার্নালে প্রকাশ করা যাবে।

গত ২৫ মার্চ এক সভায় টাস্ক ফোর্স এসব সিদ্ধান্ত নেয়। এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিটি চীনের বিখ্যাত ফুদান বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। ওই নির্দেশনার নিচে থাকা একটি নম্বরে সিএনএন কল দিয়ে এ বিষয়ে জানতে চাইলে কিছুক্ষণের মধ্যে তা মুছে ফেলা হয়। উহানের চীনা জিওসায়েন্স ইউনিভার্সিটির ওয়েবসাইটে

তবে টাস্ক ফোর্সের এই পদক্ষেপকে বিধিনিষেধ বলতে নারাজ হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্বাসপ্রশাসজনিত ওষুধ বিষয়ক বিশেষজ্ঞ ডেভিড হুই শু জেয়ং। গত ফেব্রুয়ারিতে তিনি নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে একটি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘এটি একদমই সাদামাটা একটা নিয়ম। একে বিধিনিষেধ আরোপ বলা যায় না।’

চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম দেখা দেওয়া করোনাভাইরাসে বিশ্বে এ পর্যন্ত এক লাখ ১৪ হাজার ৫৬৬ জন মারা গেছেন। মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ লাখ ৫৯ হাজার ২৫৯ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন চার লাখ ২৭ হাজার ৮৯৮ জন। চীনে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিন হাজার ৩৩৯ জনের মৃত্যু ঘটেছে।


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT