তাজা বার্তা | logo

৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাংলাদেশে করোনার প্রাদুর্ভাব শেষ হবে জুলাই মাসে, গবেষকদের অনুমান

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ২৭, ২০২০, ১৮:১৭

বাংলাদেশে করোনার প্রাদুর্ভাব শেষ হবে জুলাই মাসে, গবেষকদের অনুমান

সারা বিশ্ব থেকে করোনাভাইরাস কবে দূর হবে, এ নিয়ে আতঙ্কিত বিভিন্ন দেশের মানুষ। আর এমন এক সময়ে সুখবর নিয়ে এসেছে সিঙ্গাপুরের একদল গবেষক। যদিও এ সুখবর মিলবে কি না, সে জন্য অপেক্ষা করতে হবে কয়েকটি মাস। গবেষকদের অনুমান, বর্তমান পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে বিশ্ব থেকে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ৯৭ শতাংশ দূর হওয়ার জন্য আগামী ৩০ মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এ ছাড়া ৯৯ শতাংশ দূর হতে সময় লাগবে ১৭ জুন পর্যন্ত। আর এ ভাইরাস পুরোপুরি বিদায় নেবে আগামী ৯ ডিসেম্বর।

এর মধ্যে বাংলাদেশ সম্পর্কে ওই গবেষকদের অনুমান, আগামী ১৯ মে দেশ থেকে করোনার প্রাদুর্ভাব ৯৭ শতাংশ দূর হবে। আর ৯৯ শতাংশ দূর হতে সময় লাগবে ৩০ মে পর্যন্ত। এ ছাড়া ভাইরাসটি বাংলাদেশ থেকে পুরোপুরি বিদায় নেবে আগামী ১৫ জুলাই। সিঙ্গাপুর ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি অ্যান্ড ডিজাইনের (এসইউটিডি) ডাটা ড্রাইভেন ইনোভেশন ল্যাবের গবেষকরা এমন অনুমাননির্ভর পূর্বাভাস দিয়েছেন।

বাংলাদেশ ছাড়াও করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ১৩১টি দেশ সম্পর্কে নিজেদের ওয়েবসাইটে এ ধরনের অনুমাননির্ভর পূর্বাভাস দিয়েছেন এসইউটিডির ওই গবেষকরা।

বিশ্ববিদ্যালয়টির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ গবেষণায় সাসেপটিবল ইনফেকটেড রিকভার্ড (সার) মডেল ব্যবহার করা হয়েছে। বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ওপর পর্যালোচনা করে এমন অনুমান করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা। পরিস্থিতির পরিবর্তনের ওপর ভিত্তি করে এ তথ্য নিয়মিত পরিবর্তন করা হয়।

এদিকে সতর্কতাস্বরূপ বিশ্ববিদ্যালয়টির পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যগুলো শুধু শিক্ষা ও গবেষণার জন্য, এর ভুলত্রুটি থাকতে পারে। এ মডেল ও তথ্য বিভিন্ন দেশের পরিস্থিতি ও বাস্তবতার সঙ্গে নাও মিলতে পারে। এ ছাড়া এসব তথ্য প্রকৃতির ‌ওপর ভিত্তি করে পরিবর্তিত হতে পারে। পাঠককে অবশ্যই এ অনুমাননির্ভর তথ্য জানার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে। ওয়েবসাইটে দেওয়া ভাইরাস বিদায় নেওয়ার শেষ দিনের ওপর অতিরিক্ত আশা করলে এটি আমাদের জন্য বিপজ্জনক হতে পারে। কারণ এটি আমাদের নিয়মকানুন শিথিল ও নিয়ন্ত্রণ করে দিতে পারে এবং ভাইরাস সংক্রমণের গতিতে পরিবর্তন ঘটাতে পারে। সে জন্য অবশ্যই তা এড়িয়ে যেতে হবে।’


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT