তাজা বার্তা | logo

১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে শিশু, উপসর্গে বৃদ্ধের মৃত্যু

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ১৩, ২০২০, ১৪:১০

চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে শিশু, উপসর্গে বৃদ্ধের মৃত্যু

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আশরাফুল আলম (৬) নামের এক প্রতিবন্ধী শিশু এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে সোনা মিয়া (৬২) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল রোববার মৃত্যু হয় তাদের।

সোনা মিয়া চন্দনাইশের নয়াহাট বড়পাড়া এলাকার বাসিন্দা এবং আশরাফুল পটিয়ার হাইদগাঁও এলাকার বাসিন্দা।

চন্দনাইশ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শাহিন হোসাইন চৌধুরী জানান, গত এক সপ্তাহ আগে সোনা মিয়ার মধ্যে জ্বর-কাশি দেখা দিলে তিনি চন্দনাইশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য যান। ওই সময় চিকিৎসক তাঁকে করোনাভাইরাসের পরীক্ষার জন্য বললে পালিয়ে যান তিনি। এরপরই উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয় তাঁর।

অন্যদিকে, সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি জানান, পটিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গতকাল রোববার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে মৃত্যু হয় শিশু আশরাফুলের।

সিভিল সার্জন আরো জানান, এর আগে গতকাল রাত ২টা ১০ মিনিটে শিশুটিকে পটিয়া থেকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। এখন নিয়ম অনুযায়ী দাফনের ব্যবস্থা চলছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে আশরাফুলের মধ্যে করোনার উপসর্গ দেখা দিলে তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। গতকাল বিকেলে তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারজানা জাহান উপমা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে সাতকানিয়া উপজেলায় নতুন করে আরো দুই যুবকের মধ্যে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। তাঁদের চিকিৎসার জন্য আন্দরকিল্লাস্থ জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে।

সাতকানিয়ার ইউএনও নুর-এ আলম আরো জানান, নতুন করে শনাক্ত হওয়া করোনা রোগীদের মধ্যে একজন নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা (১৯) এবং অন্যজন ঠিকাদার (৩২)। তাঁরা দুজনই সাতকানিয়া পৌরসভা এলাকার বাসিন্দা। গত শনিবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধীনে নমুনা সংগ্রহ করে ফৌজদারহাটে অবস্থিত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি) পাঠানো হয়। এরপর গতকাল রোববার রাতে নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পাওয়া যায়। রিপোর্টে করোনা পজিটিভ আসে। এরপর মধ্যরাতেই সাতকানিয়া পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ২৩টি বসতঘর লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় পটিয়ায় একটি ও সাতকানিয়ায় ২৩টি মিলিয়ে মোট চব্বিশটি বাড়ি লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে।


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT