তাজা বার্তা | logo

১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শ্বশুরবাড়ি এসে জরুরি নম্বরে ত্রাণ চেয়ে ‘বিটলামি’, আটক ৫

প্রকাশিতঃ মে ০২, ২০২০, ১৯:০৬

শ্বশুরবাড়ি এসে জরুরি নম্বরে ত্রাণ চেয়ে ‘বিটলামি’, আটক ৫

সিরাজগঞ্জের কাজীপুর উপজেলায় শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসে মজার ছলে সরকারি ত্রাণ চেয়ে অনবরত ৩৩৩ নম্বরে কল করায় এক যুবককে আটক করা হয়েছে। তাঁর সঙ্গে জড়িত থাকায় আরো চারজনকে আটক করা হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার রাতে ৩৩৩ নম্বরে ফোন পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সরেজমিনে ফোনকারীদের বাড়িতে পৌঁছে তাদের পাকা বাড়ি দেখে অবাক হন। পর্যাপ্ত খাবারও তাদের কাছে মজুদ রয়েছে। এমনকি ত্রাণের চাল, ডাল, চিনি, লবণও মজুদ রয়েছে।

এ সময় ফোনকারী উপজেলার শুভগাছা গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে আসা জেলার তাড়াশ উপজেলার গোলাম রাব্বী, একই গ্রামের মাহমুদুল হাসান, শফিকুল ইসলাম, মনসুর নগর ইউনিয়নের শালগ্রামের ফরিদ, পৌর এলাকার বেড়ীপোটল গ্রামের তমেজ উদ্দিন আটক করে নিয়ে আসা হয়।

কাজিপুর উপজেলা পরিষদ সূত্রে জানা যায়, দেশব্যাপী করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া যাদের ঘরে এক বেলারও খাবার নেই তাদের জন্য ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে জানানোর ব্যবস্থা রেখেছে সরকার। কাজিপুরে এই নম্বরে ফোন করে এরমধ্যে অনেকেই সহায়তা পেয়েছেন। গভীর রাতেও কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফোনকারীদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন।

গতকাল শুক্রবার রাতে ফোন পেয়ে ফোনকারীদের বাড়িতে ইউএনও গিয়ে অনেকেরই ঘরে পর্যাপ্ত খাবারের মজুত দেখতে পান। মজার ছলে ওই নম্বরে ফোন করায় পাঁচজনকে আটক করে নিয়ে আসা হয়। পরে রাতেই আটককৃতদের স্বজনরা মুচলেকা দিয়ে তাদের ছাড়িয়ে নিয়ে যায় বলে জানান কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহিদ হাসান সিদ্দিকী।

ইউএনও আরো বলেন, ‘বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। সারা দিন দৌড়ঝাপের মধ্যেই থাকতে হচ্ছে। তারপরও ফোন পেয়ে গিয়ে দেখি তারা মিথ্যা কথা বলেছে। অনেকে শুধু মজা করার জন্যই ফোন দিচ্ছে।’


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT