তাজা বার্তা | logo

২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কারখানার গেটে ছাঁটাইয়ের নোটিশ, বাইরে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

প্রকাশিতঃ এপ্রিল ৩০, ২০২০, ১৮:৫৭

কারখানার গেটে ছাঁটাইয়ের নোটিশ, বাইরে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

রপ্তানি আদেশ বাতিল হয়ে যাওয়ার কারণ দেখিয়ে আশুলিয়ার বেশ কয়েকটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করেছে কর্তৃপক্ষ। চাকরিচ্যুত শ্রমিকরা সেখানে বিক্ষোভ করেছে। তারা বলছে, এই সময় চাকরি চলে যাওয়া তাদের জীবনকে গভীর খাদে ফেলে দেবে।

আশুলিয়ার নরসিংহপুর সরকার মার্কেট এলাকার হ্যাং টং বিডি লিমিটেড কর্তৃপক্ষ ফটকে কারখানা লে-অফ ঘোষণা ও সাড়ে ৮০০ শ্রমিক-কর্মচারী ছাঁটাইয়ের নোটিশ ঝুলিয়ে দেয়। এর প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে কারখানার সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে শ্রমিকরা।

কারখানার মহাব্যাবস্থাপক স্বাক্ষরিত এক নোটিশে বলা হয়, ‘বর্তমানে বিশ্বে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির সব রপ্তানিজাত পণ্যের উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে। সেইসঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্রেতাদের সব ক্রয়াদেশও বাতিল হয়ে গেছে।’

এই প্রেক্ষাপটে গত ১ এপ্রিল-২০২০ থেকে ৩১ মে পর্যন্ত কারখানা লে-অফ ঘোষণা করে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের নোটিশ টাঙ্গিয়ে দেয় কারখানা কর্তৃপক্ষ।

ছাঁটাই হওয়া শ্রমিকরা জানান, এ অবস্থা তাদের জীবনযাপনকে আরো দুর্বিসহ করে তুলেছে।

বিক্ষোভরত রহিমা আক্তার, মুন্নি বেগম, সামছুন্নাহার সাথী ও ফাতেমাসহ অনেকেই অভিযোগ করেন, হঠাৎ করে লে-অফ ঘোষণা করায় কারখানাটির প্রায় এক হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে পড়ছে। পাশাপাশি কারখানাটিতে শ্রমিকদের দুই মাসের বেতন-ভাতা বকেয়া রয়েছে। এই অবস্থায় ছাঁটাইয়ের কারণে শ্রমিকরা বিপাকে পড়বে।

দীর্ঘদিন ধরে কারখানাটিতে কর্মরত সুইং অপারেটর পারুল আক্তার চাকরি হারিয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘বর্তমানে দেশের অবস্থা ভালো না হওয়ার এমনিতেই আমরা অনেক কষ্টে দিনাতিপাত করছি। এর মধ্যে হঠাৎ ছাঁটাই করে দেওয়ায় পরিবার নিয়ে এখন কোথায় যাবো, কী করবো, কী খাবো বুঝতে পারছি না। এত বছর ধরে এ কারখানায় কাজ করছি। হঠাৎ সাধারণ ছুটির মধ্যে কারখানা বন্ধ করে দেওয়া কোনো আইনে আছে? আমাদের বেতন দেয়নি, অফিস থেকে কিছু বলাও হয়নি। হুট করে আজ সকালে শ্রমিকদের নাম দিয়ে ছাঁটাই তালিকা টাঙিয়ে দিয়েছে।’

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, ‘আমরা যা করেছি সব নোটিশে লেখা আছে। এ ব্যাপারে নতুন করে কোনো কিছু বলার নেই।‘ এরপর তিনি মুঠোফোনের লাইন কেটে দেন।

অন্যদিকে আশুলিয়ার কাঁঠালতলা এলাকার ভ্যানীকান নিটওয়্যার লিমিটেডের প্রায় তিন শতাধিক শ্রমিক তাদের দুই মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে কারখানার সামনে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন। তবে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কারখানাগুলোর সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ রিজাউল হক দিপু বলেন, ‘এখন পর্যন্ত এক হাজার ৩৫৬ পোশাক কারখানার মধ্যে এক হাজার ২৭৯টি শ্রমিকের মজুরি পরিশোধ করেছে। বাকি ৭৭টি কারখানা এখন পর্যন্ত মজুরি দেয়নি। আগামী মাসে ৫ মে মধ্যে মজুরি দিতে ব্যর্থ কারখানা মালিকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা।’


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT