তাজা বার্তা | logo

৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ঢাকায় প্রথম দিনের ভার্চুয়াল আদালতে ৩৯ জনের জামিন

প্রকাশিতঃ মে ১২, ২০২০, ১৯:০৬

ঢাকায় প্রথম দিনের ভার্চুয়াল আদালতে ৩৯ জনের জামিন

করোনাভাইরাসের কারণে দেশব্যাপী চলছে সাধারণ ছুটি। আর এ ছুটিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকল্পে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চারটি ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে কারাগারে থাকা আসামিদের জামিন শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার প্রথম দিনের শুনানিতে ৩৪ জন আসামি জামিন পেয়েছে। এর মধ্যে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ৪ নম্বর আদালতের বিচারক রাজেশ চৌধুরী সাতটি আবেদনের মধ্যে পাঁচটির শুনানির পরে পাঁচটিরই জামিন মঞ্জুর করেছেন।

এই আদালতের পেশকার খন্দকার মোজাম্মেল হোসেন এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘প্রথম দিনের ৩৪ জনকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ও ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালত থেকে পাঁচজনসহ মোট ৩৯ জনের জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘জামিন মঞ্জুর করা মামলাগুলো মাদক ও দণ্ডবিধি আইনের।’

এদিকে ঢাকা বারের আইনজীবী মাহফুজুর রহমান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘করোনার কারণে দেশে সাধারণ ছুটি চলছে। যার কারণে আদালতও বন্ধ। ছুটির আগে অনেক সাধারণ অপরাধের আসামি কারাগারে যান, তাঁরা জামিন আবেদন করতে পারেননি। তাই নতুন ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে জামিন শুনানি করতে পেরে ভালো লেগেছে।’ তিনি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে সমস্যা হলেও সামনে আইনজীবীরা এ বিষয়ে অভিজ্ঞ হলে কোনো সমস্যা তৈরি হবে না।’

আরেক আইনজীবী ইব্রাহিম খলিল এনটিভি অনলাইকে বলেন, ভার্চুয়াল আদালত সর্ম্পকে অনেকে অভিজ্ঞ নয়। এই কারণে অনেক আইনজীবী জামিনের আবেদন কীভাবে করবে তা জানেন না। তিনি বলেন, আইনজীবীদের আবেদন করতে হলে আদালতে যেতেই হবে। কারণ সেখান থেকে ওকালতনামা, কোর্ট ফি, ফাইল, মামলার কাগজ, জামিননামা ক্রয় করতে হয়। আর এতে করোনার ঝুঁকি কোনো অংশে কম হবে না।

খলিল আরো বলেন, যেহেতু আইনজীবীদের এখন আদালতে যেতে হবে তাই সামাজিক দূরত্ব মেনে আদালত খুলে দিলে অনেক আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থী উপকৃত হবেন।

এদিকে গতকাল সোমবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট জুলফিকার হায়াত চারটি ভার্চুয়াল আদালত গঠন করে আদেশ জারি করেন। আদেশ চারজন বিচারক ঢাকার বিভিন্ন থানার কারাগারে থাকা অসামিদের জামিনের আবেদন শুনবেন।

এর মধ্যে ভার্চুয়াল আদালত-১-এ বিচারক হিসেবে থাকবেন ঢাকার মেট্রোপলিন ম্যাজিস্ট্রেট সরাফুজ্জামান আনছারী। তিনি উত্তরা পূর্ব, উত্তরা পশ্চিম, তুরাগ, দক্ষিণখান, উত্তরখান, বিমানবন্দর, গুলশান, বনানী, বাড্ডা, ভাটারা, খিলক্ষেত থানার মামলার শুনানি শুনবেন।

ভার্চুয়াল আদালত-২-এ বিচারক হিসেবে থাকবেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরী। তিনি রমনা, শাহবাগ, কলাবাগান, ধানমণ্ডি, নিউমার্কেট, হাজারীবাগ, লালবাগ, চকবাজার, কামরাঙ্গীরচর, কোতোয়ালি, বংশাল ও সুত্রাপুর থানার হাজতি আসামিদের জামিন আবেদন শুনবেন।

ভার্চুয়াল ৩ নম্বর আদালতে বিচারক হিসেবে থাকবেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী। তিনি মতিঝিল, পল্টন, শাহজাহানপুর, খিলগাঁও, রামপুরা, সবুজবাগ, মুগদা, ডেমরা, যাত্রাবাড়ী, কদমতলী, শ্যামপুর, ওয়ারী ও গেন্ডারিয়া থানার হাজতি আসামিদের জামিনের আবেদন শুনবেন।

ভার্চুয়াল ৪ নম্বর আদালতের বিচারক হিসেবে থাকবেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরী। তিনি তেজগাঁও, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল, হাতিরঝিল, শেরে বাংলানগর, মোহাম্মদপুর, আদাবর, মিরপুর, দারুসসালাম, শাহআলী, পল্লবী, রূপনগর, কাফরুল ও ভাষানটেক থানার হাজতি আসামিদের জামিনের আবেদন শুনবেন।

এ ছাড়া ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দুটি ভার্চুয়াল আদালত গঠন করা হয়েছে। ভার্চুয়াল-১-এ বিচারক হিসেবে থাকবেন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান সিকদার। তিনি সাভার, আশুলিয়া, ধামরাই, জিআরপি, দ্রুত বিচার মামলায় কারাগারে থাকা আসামিদের জামিন আবেদন শুনবেন।

অপরদিকে ভার্চুয়াল-২ নম্বর আদালতে থাকবেন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রাজীব হাসান। তিনি কেরানীগঞ্জ, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ, দোহার, নবাবগঞ্জ, মোটরযান ও নন-জিআর মামলায় কারাগারে থাকা আসামিদের জামিন আবেদন শুনবেন।


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT