তাজা বার্তা | logo

১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনায় আক্রান্ত ভোক্তা অধিকারের সেই আলোচিত শাহরিয়ার

প্রকাশিতঃ মে ১৪, ২০২০, ১৯:২১

করোনায় আক্রান্ত ভোক্তা অধিকারের সেই আলোচিত শাহরিয়ার

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সৃষ্ট পরিস্থিতিতে প্রতিদিন রোজা রেখে পাইকারি-খুচরা বাজার, সুপারশপ, আড়তসহ বিভিন্ন মাস্ক ও স্যানিটাইজারের দোকান চষে বেড়াচ্ছিলেন তিনি। উদ্দেশ্য একটাই, চলমান পরিস্থিতিতে যাতে ক্রেতাকে বিক্রেতা না ঠকান। এজন্য একাধিক বিক্রেতাকে জরিমানাসহ দিয়েছেন কারাদণ্ডও। তিনি জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের আলোচিত ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। এবার তিনিও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল বুধবার নমুনা পরীক্ষায় তাঁর ‘করোনা পজেটিভ’ ফলাফল আসে। মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার নিজেই এনটিভি অনলাইনকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

শুধু জরিমানা বা কারাদণ্ড দেওয়া নয়, পাশাপাশি চালানো এসব অভিযানে ব্যবসায়ীদের সতর্কও করছিলেন মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, যাতে করে কেউ অন্যায় কাজ না করেন। ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি তিনি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলতে মানুষকেও সচেতন করছিলেন। স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়াতে মাস্ক, হ্যান্ডগ্লাভস ও হাতধোয়া এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতেও পরামর্শ দিচ্ছিলেন সবাইকে। তিনি করোনাকালের একজন সম্মুখ যোদ্ধা।

মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, ‘গত সোমবার থেকে আমি অসুস্থতা অনুভব করতে থাকি। মঙ্গলবার থেকে হালকা জ্বর-সর্দি ও কাশি ছিল। গতকাল বুধবার সকালে আমি স্কয়ার হাসপাতালে করোনা টেস্ট করি। বিকেলে হাসপাতাল থেকে আমাকে ফোনে জানানো হয়, আমার করোনা পজেটিভ এসেছে। কাল হয়তো ফাইনাল রিপোর্ট পাব। নিজেকে আপাতত হোম আইসোলেশনে রেখেছি।’

কীভাবে আক্রান্ত হলেন বলে মনে হচ্ছে, এমন প্রশ্নে শাহরিয়ার বলেন, ‘এটা বলা মুশকিল। কারণ, প্রতিদিন বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছি। নানা ধরনের মানুষের সংস্পর্শে আসছি। মার্কেটে তো প্রচুর মানুষ থাকেন। আবার রাস্তা-ঘাটেও চলাচল করা হয়। কোনো না কোনোভাবে আক্রান্ত হয়েছি। এখন আমাদের উচিত ঘর থেকে একদম বের না হওয়া।’


© তাজা বার্তা ২০২১

Developed by XOFT IT